জনপ্রিয় ইউটিউব ভিডিওগুলোর ভেতরের তথ্য জানুন!

0
377

“Tech Inside” এর পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে জানাই অগ্রিম শুভেচ্ছা।আপনাদের যেকোন প্রশ্ন ও মতামতের জন্য আমাদের সাথে ওয়েবসাইটফেসবুকপেজফেসবুকগ্রুপইউটিউবচ্যানেললিংকডইন কোম্পানি পেজ এর মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন।

চলুন, আর কথা না বাড়িয়ে মূল পর্বে চলে যাইঃ

আপনার কি কোন ইউটিউব চ্যানেল আছে? আপনি কি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিও গুলোকে ইউটিউবের সার্চ রেজাল্টের প্রথম পাতায় নিয়ে আসতে চান? সার্চ রেজাল্টের প্রথম পাতায় নিয়ে আসাটা ইউটিউব মার্কেটিং এর সবচেয়ে সেরা উপায়। কারন কেউ যদি ইউটিউবে সার্চ করে আপনার কোন ভিডিও দেখে তাহলে তিনি আপনার সেরা টার্গেটেড অডিয়েন্স হতে পারেন, কারন আপনি যে বিষয়টা নিয়ে ভিডিওটা বানালেন সেটাই ওনার প্রয়োজন। আপনি যদি আপনার কোন প্রোডাক্ট নিয়ে ভিডিও বানান তাহলে তা বিক্রির সম্ভাবনা বেড়ে যায়, আপনার কোন সার্ভিসও এমনি ভাবে টার্গেটেড মানুষদের পৌছে দিতে পারেন। আর ঠিক এ কারনেই ইউটিউবের ভিডিওকে সার্চ রেজাল্টের প্রথম পাতায় নিয়ে আসাটা অনেক গুরুত্বপুর্ন। আর তাই এখন ইউটিউবের কন্টেন্ট ক্রিয়েটররা উঠে পড়ে লেগেছে কে কাকে ফেলে আগে র‌্যাঙ্ক করবে।

আর আপনিও যদি তাদের কাতারের একজন হয়ে থাকেন তাহলে আজকের টিউটোরিয়ালটা আপনার জন্য। আজকে আমরা এমন একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো যা আমাদের অনেক ভাবে হেল্প করব। আজকে আমরা জানব একটি গুগল ক্রোম এক্সটেনশন সম্পর্কে যার নাম Vidiq. এটির মাধ্যমেই আমরা আমাদের ভিডিওকে র‌্যাঙ্ক করাতে পারবো।

আজকে আমরা যা যা জানব:

১. Vidiq কি?

২. Vidiq ব্যবহার করে আমরা কি কি তথ্য জানতে পারবো?

৩. Vidiq ইন্সটল করার নিয়ম এবং অ্যাকাউন্ট খুলার নিয়ম।

৪. Vidiq কিভাবে ব্যবহার করবেন?

Vidiq কি?

Vidiq হচ্ছে একটি ক্রোম এক্সটেনশন যেটা আপনাকে ইউটিউব মার্কেটিং এর জন্য অনেক হেল্প করবে। এই এক্সটেনশনটি ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি ইউটিউবের যেকোন ভিডিওর ব্যাপারে অনেক গুরুত্বপুর্ন তথ্য জানতে পারবেন খুব সহজেই। এবং আপনার ভিডিওকেও ইউটিউব এসইও এর জন্য অপটিমাইজ করতে পারবেন। আর সবচেয়ে বড় কথা হলো এই এক্সটেনশনটি ইউটিউব সার্টিফাইড তাই এটি আপনার জন্য ১০০% নিরাপদ।

Vidiq এর মাধ্যমে যা যা জানতে পারবেন:

Vidiq এক্সটেনশনটি ব্যবহার করে আপনি অনেক ধরনের তথ্য জানতে পারেন। যেমন ধরুন আপনি একটি ভিডিওতে ক্লিক করলেন এখন ভিডিওটি চালু হলে আপনি এখানে অনেক গুলো গুরুত্বপুর্ন তথ্য জানতে পারবেন। যেমন ধরুন এই ভিডিওটি সোশাল মিডিয়াতে কেমন সাড়া পেয়েছে, ইউটিউবে এর Engagement Rate কত, এ চ্যানেলের অনেক তথ্য এই চ্যানেলটিতে না গিয়েই, SEO Score সহ আরো তথ্য পাবেন এসইও এর ব্যাপারে, এই ভিডিওতে ব্যবহার Tag বা Keyword সমুহ এবং এগুলোতে এই ভিডিওটির র‌্যাঙ্ক কেমন তাছাড়া এই কিওয়ার্ড গুলোকে এক ক্লিকে কপি করতে পারেন।

তো এখন প্রশ্ন আসতে পারে এগুলো জেনে আপনার লাভ কি? বা এগুলো দিয়ে আপনি কি করবেন? তো চলুন এ বিষয়টা সম্পর্কেও একটু জেনে আসি। আপনি কি জানেন এসইওতে কম্পিটিটর এনালাইসিস নামে একটা বিষয় আছে যেটা খুবই গুরুত্বপুর্ন? আপনি কোন একটি কিওয়ার্ডে র‌্যাঙ্ক করতে চাইলে আগে আপনাকে জানতে হবে যারা এ কিওয়ার্ড নিয়ে কাজ করে তাদের অবস্থান এবং অবস্থা কেমন। আর Vidiq আপনাকে এই গুরুত্বপুর্ন কাজটিই করে দিবে খুবই সহজে। এবার নিশ্চই বুঝতে পারছেন কেন এটা গুরুত্বপুর্ন।

Vidiq ইন্সটল এবং অ্যাকাউন্ট করার নিয়ম:

এটিকে ইন্সটল করার জন্য আপনাকে https://vidiq.com/apps/vision/ এই লিঙ্ক এ যেতে হবে। এবার “Install Chrome Extension” এ ক্লিক করুন।

আপনাকে নিচের পেজের মতো ক্রোম এক্সটেনশন স্টোর এ নিয়ে আসবে।

এবার “Add to Chrome” বাটনে ক্লিক করুন। আপনার সামনে একটি পপ আপ বক্স আসবে সেখান থেকে “Add Extension” এ ক্লিক করুন।

যদি দেখেন আপনার ব্রাউজারের এক্সটেনশন বারে Vidiq এর লোগো যুক্ত হয়েছে তাহলে বুঝবেন এটি ইন্সটল হয়ে গিয়েছে। এবার আমাদেরকে এটা ব্যবহার করার জন্য একটি ফ্রি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।

Vidiq বাটনটিতে ক্লিক করুন, একটা ড্রপ ডাউন মেনু বার পাবেন একটু স্ক্রল করে নিচে নামলে লগিন অপশন খুজে পাবেন। সেটা থেকে “Create Account” এ ক্লিক করুন।

এখন এখানে আপনার ইমেইল, নাম, পাসওয়ার্ড দিন। বক্সটিতে টিক দিন এবং “Sign Up” বাটনে ক্লিক করুন, হয়ে গেল আপনার Vidiq অ্যাকাউন্ট।

Vidiq কিভাবে ব্যবহার করবেন?

এই এক্সটেনশনটি ব্যবহার করা খুবই সহজ। ধরুন আপনি ইউটিউবে সার্চ করলেন “Rank YouTube video” এখন ইউটিউব আপনাকে রেজাল্ট গুলো দেখাবে। এখন আপনি এখান থেকে আরো কিছু বিষয় জানতে পারবেন এখান থেকে। নিচের ছবিটিতে আমি সেগুলে তুলে ধরেছি।

১. একটা চ্যানেলে কতজন সাবস্ক্রাবার আছে সেটা সেই চ্যানেলে না গিয়েই এখান থেকে জানতে পারবেন।

২. ভিডিও গুলোতে কোন কোন কিওয়ার্ড গুলো ব্যবহার করা হয়েছে।

৩. ইউটিউবে লাইক কমেন্ট, ফেসবুকে লাইক কমেন্ট, ইউটিউব এঙ্গেজ রেট।

৪. আপনার কিওয়ার্ডটির ব্যাপারে কিছু গুরুত্বপুর্ন তথ্য, কিওয়ার্ডটার উপর মাসিক সার্চ, সবচেয়ে বেশি কত ভিউ আছে। ইত্যাদি।

৫. কিওয়ার্ড স্কোর, কিওয়ার্ডটির সার্চ ভলিউম এবং কম্পিটিটর স্কোর।

এটা ছিল সার্চ করার পর পাওয়া তথ্য, এবার ধরুন কোন একটা ভিডিওতে গেলেন এবার সেই ভিডিওর কি অবস্থা সেটাও বিস্তারিতভাবে জানতে পারবেন।

 

তো এটা ছিল কিভাবে Vidiq নিয়ে আমার আজকের টিউটোরিয়াল আশা করি আপনার কাজে লাগবে। এতক্ষন সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।